logo

সাকিব-মাশরাফিদের পূর্ণ স্বাধীনতা দিচ্ছেন সহকারী কোচ


সাকিব-মাশরাফিদের পূর্ণ স্বাধীনতা দিচ্ছেন সহকারী কোচ

ছুটি কাটিয়ে মাশরাফি-সাকিবদের দায়িত্বে ফিরেছেন বাংলাদেশ দলের সহকারী কোচ রিচার্ড হ্যালসল। বুধবার দলের সঙ্গে যোগ দেন হ্যালসল। সহকারী কোচ হলেও আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে তার কাঁধেই জাতীয় দলের দায়িত্ব।

 

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ কিংবা ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্য বড় কোনো পরিকল্পনা নেই হ্যালসলের। ছেলেদের ওপরই সব ছেড়ে দিয়েছেন তিনি, ‘আমি শুধু তাদেরকে মনে করি দিচ্ছি তারা কোন জায়গাটায় ভালো। এবং সে জায়গাটায় বেশি মনোযোগী হও। আমি তাদের সামর্থ্যে পুরো বিশ্বাস রাখছি। তারা যদি স্বাধীনতা পেয়ে খেলে তাহলে ব্যতিক্রমী দল হয়ে উঠবে।’

 

‘ত্রিদেশীয় সিরিজ উত্তেজনাপূর্ণ হবে। দক্ষিণ আফ্রিকায় বাজে সময় কাটানোর পর ঘরের মাঠে নিজেদের গুছিয়ে নেওয়ার দারুণ সুযোগ। আমরা জানি, আমরা ঘরের মাঠে ভালো খেলি। দেশের বাইরে খেলে এসে সবাই বিপিএল উপভোগ করেছে। এখন ক্যাম্পেও ছেলেরা চনমনে। আমি বিশ্বাস করি, ঢাকায় তারা শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ যেভাবে খেলেছিল, ঠিক সেভাবেই খেলবে। এখানে খেলতে তারা বেশ উপভোগ করে। আশা করছি, ভালো কিছু মুহূর্ত আপনাদের উপহার দিতে পারব’ –বলেছেন হ্যালসাল।

 

চন্ডিকা হাথুরুসিংহে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব ছেড়ে যোগ দিয়েছেন শ্রীলঙ্কা দলে। বাংলাদেশের লড়াইটা শ্রীলঙ্কার সঙ্গে, হাথুরুসিংহের সঙ্গে নয় বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন হ্যালসেল। তবে দুই দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স বিবেচনায় শ্রীলঙ্কার থেকে বাংলাদেশকেই এগিয়ে রাখছেন তিনি, ‘দেখুন আমরা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলতে যাচ্ছি, যারা কিছুদিন আগে ভারতে কঠিন সময় পার করেছে। তারা খুব বাজেভাবে হেরেছে, কিন্তু এখনো ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি। তবে শ্রীলঙ্কা ভালো দল, তারা কী করতে পারে; সেই সম্পর্কে আমরা অবগত। আমরা মিরপুরে খেলছি। শেষ তিন বছরে ইংলিশরা বাদে আমাদের এখান থেকে কেউ সিরিজ জিততে পারেনি। অন্য দুই দলের তুলনায় বাংলাদেশ বেশ ভারসাম্য একটি দল।

 

ক্রিকেট-জ্ঞানের পরিধি ও পরিশ্রমী হিসেবে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের মাঝেও বেশ জনপ্রিয় হ্যালসল। সহকারী কোচের দায়িত্ব পালনে কোনো চ্যালেঞ্জ দেখছেন না হ্যালসল, ‘দেখুন আমি আগেও এ কাজটি করেছি। আমি কোচিং সাইড পুরোটাই দেখেছি। তাই এখনো কোনো পার্থক্য দেখছি না। নিজের কাজটা ঠিকমতো করে বাংলাদেশের জয় পাওয়াই সব কিছুর উর্ধ্বে। এটাই সবাই প্রত্যাশা করছে। এর জন্য পদবী পরিবর্তনে কোনো সম্পর্ক নেই। প্রত্যেকেই চায় বাংলাদেশ জিতুক এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেট উপহার দিকে। আমি যেখানে আছি, সেখান থেকে যদি নিজের কাজটা করি তাহলেই ভালো।’

মন্তব্য

উপর