logo

বোম বাষ্ট হয়ে ক্ষত বিক্ষত হলো চায়ের দোকানির হাত


বোম বাষ্ট হয়ে ক্ষত বিক্ষত হলো চায়ের দোকানির হাত

 

যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলায় সব্দুল মোল্যা (৪৫) নামে এক চায়ের দোকানদার বোমবাষ্টে গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে৷

 

বোমবাষ্টের ঘটনাটি মঙ্গলবার সকালে আহত সব্দুল মোল্যার নিজ বাড়ির খড়ির ঘরে ঘটে। আহত চা দোকানি  জহরপুর ইউনিয়ানের বেতালপাড়া গ্রামের আব্দুল মোল্যার ছেলে৷ 

 

আহত সব্দুলের স্ত্রী মুনজুরা হাসপাতালে সাংবাদিকদের জানান,আহত সব্দুলের দুইপাঁঁ পঙ্গু একারনে বাড়ির সামনে একটি চায়ের দোকান দিয়ে ১৫/২০ বছর যাবত চা বিক্রি করে৷ আমার স্বামীর পঙ্গুতের কারনে সংসারে অভাব অনোটন লেগেই থাকে বলে জানান তার স্ত্রী তিনি আরও বলেন আমিও রাস্তায় মাটির কাজ করে সংসার চালাতে সাহায্য করি৷ এর ভিতর এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য ইনতাজ আহত সব্দুলের স্ত্রী মুনজুরাকে কুপ্রস্তাব দেয় এবং মাস খানেক আগে সাবেক ইউপি সদস্য ইনতাজ রাতে আমাদের ঘরে উঠে৷ এই ঘটনাটি স্থানীয় ভাবে জানাজানি করা হলে ইউপি সদস্য ইনতাজ সহ ৫/৬জন আমাদের কে মারপিঠ করে৷ এঘটনায় বাঘার পাড়া থানায় অভিযোগ করা হয়৷ সে সময় থেকে সাবেক ইউপি সদস্য ইনতাজের সাথে  আমাদের শত্রুতা ছিলো৷আজ সকালে আমার স্বামী সব্দুল মোল্যা চায়ের দোকানের জন্য নিজ বাড়ির খড়ি ঘরে খড়ি টান দিলে হটাৎ করে বোমবাষ্ট হয়ে সব্দুল গুরুতর আহত হয়৷ স্থানীয়রা আহত সব্দুলকে উদ্ধার করে৷ মঙ্গলবার সকালে যশোর জেনারেল হাসপাতালে এনে ভর্তি করে৷ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক কল্লোল কুমার সাহা বলেন রুগীটির বাম হাতে বোমবাষ্টের ক্ষত আছে,ও শরীরের আরো দুএক জায়গায় ক্ষত আছে৷ 

 

এব্যাপারে জানতে চাইলে বাঘারপাড়া থানার অফিসার্স ইনচার্জ মন্জুরুল ইসলাম এই  প্রতিবেদককে বলেন বোমবাষ্টের ঘটনা আমি শুনেছি।আহত হয়ে সে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে এটাও শুনলাম।আমি ঘটনা স্থলে অফিসার পাঠানোর  প্রস্তুতি চলছে।

 

মন্তব্য

উপর