logo

আতংকে সম্পন্ন হল বিএনপি'র সমাবেশঃ বক্তব্য প্রচার করেনি দলীয় নেতাদের টিভি চ্যানেল


আতংকে সম্পন্ন হল বিএনপি'র সমাবেশঃ বক্তব্য প্রচার করেনি দলীয় নেতাদের টিভি চ্যানেল

মোঃ মাইন উদ্দিনঃ গতকাল ১২ নভেম্বর রোববার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নানান প্রতিবন্ধকাতার আতংকের মধ্য দিয়ে অনুষ্টিত হল বিএনপি'র সমাবেশ।
বেগম খালেদা জিয়ার বক্তব্য প্রচার করেনি বিএনপি দল সমর্থিত একাধিক টিভি চ্যানেল এমন অভিযোগ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।


গতকাল ১২ নভেম্বর "জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস" উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখছিলেন বেগম খালেদা জিয়া।
বেগম খালেদা জিয়া তাঁর বক্তব্যে দ্রব্যমূল্য ও বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি প্রসঙ্গে বলছিলেন, সরকার এই দেশটাকে শেষ করে দিয়েছে।


সরকার ২০০৮ সালে জনগণকে কথা দিয়েছিল ১০ টাকা কেজি চাল খাওয়াবে। কিন্তু মানুষ আজ এ চাল ৭০ টাকা কেজি খাচ্ছে কেন।

 

 

তিনি বললেন, শুধু চাল না, তরিতরকারি ও সবজির দামও ৭০ টাকা কেজির নিচে নয়। পেঁয়াজের দামও ১০০ টাকা কেজি পর্যন্ত চলে গেছে।
এই দুরবস্থায় মানুষ কী করে জীবন যাপন করবে।


প্রতিটি নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম জনগণের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে এমন বক্তব্যই দিচ্ছিলেন বিএনপি'র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া।
তবে সমাবেশ শুরুর আগে বিএনপি'র পক্ষ থেকে এমন অভিযোগও করা হহচ্ছিল এই জনসভাকে কেন্দ্র করে সকাল থেকে রাজধানীতে গণপরিবহন বন্ধ করে দিয়েছিল সরকার।
পুলিশ বিভিন্নস্থানে বেরিকেট দিয়ে পরিবহন ঘুরিয়েছিল।


তল্লাশির নামে রাজধানী মুখি যাবাহনে আতংক সৃষ্টি করেছিল।


সরকারের অঘোষিত হরতালে পরিবহন বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়ে ছিল জনসাধারণ। পরিবহন বন্ধ করে দেয়ায় জনসভায় যোগ দিতে আসা নেতাকর্মীদের দূর দূরান্ত- থেকে পায়ে হেটে হেটে আসতে হয়েছে।


বিশেষ করে, মোহাম্মদপুর, গাবতলী, মিরপুর, উত্তরা, কেরানীগঞ্জ, যাত্রাবাড়ি, সায়েদাবাদ থেকে জনসভাস্থলে নেতাকর্মীদের পাশাপাশি জনসাধারণ ও প্রয়োজনীয় কাজে ঘরের বাইরে বের হয়েই দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে।


কিন্তু শেষ হল সমাবেশ, বন্ধ হল এসব আলোচনা আর সমলোচনা।


আবার শুরু হল বেগম খালেদা জিয়ার সমাবেশ থেকে লাইভ সংবাদ প্রচার করছে না টিভি চ্যানেল গুলো।
সরকার এখান থেকেও রেখায় পায়নি।


বলা হচ্ছে টিভি চ্যানেলগুলোকে সরকারের পক্ষ থেকে কড়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছে লাইভে না যাওয়ার জন্য।
পরে দেখা গেল বিকাল সাড়ে চারটার দিকে বেগম খালেদা জিয়ার ভাষনের সময় মাত্র দু'টি চ্যানেল সমাবেশস্থলে গিয়েছিলো।
তাও যমুনা টিভি ও চ্যানেল ২৪ এ দু'টি।


সম্ভবত এর বাইরে আর কোন চ্যানেলই বেগম খালেদা জিয়ার ভাষন দেখাচ্ছে না।
ফেসবুকে এ ব্যাপারে দেখলাম বাংলাদেশ জাতীয়তা দল বিএনপি'র পক্ষ থেকে চ্যানেল দু'টিকে অনেক অনেক ধন্যবাদও দেওয়া হচ্ছিল।


আবার দুয়েকটি ফেসবুক আইডি দেখলাম অত্যন্ত দুঃখ প্রকাশ করে বলছেন, খালেদা জিয়ার ভাষণের সময় বিএনপি নেতা ফালুর এনটিভি  খুবই ব্যস্ত ছিলেন কুইজ প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠান নিয়ে।


অপর নেতা সাদেক হোসেন খোকার বাংলা ভিশন ব্যস্ত ছিল নাটক প্রচার নিয়ে।


এসব লেখার নিচে দেখলাম এমন মন্তব্য, জাতি তাদের মত নেতাদের কাছ থেকে এর চেয়ে বেশি কি আর আশা করতে পারে।


আবার অনেকে এনটিভি ও বাংলা ভিশন এ দু'টি চ্যানেলকে গতকাল হঠাৎ করেই বিটিভি হয়ে গিয়ে ছিলেন বলেও মন্তব্য করেছেন।

লেখক, সাংবাদিক।

মন্তব্য

উপর