logo
শিরোনাম

৫৫২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরকারিভাবে ল্যাপটপ বিতরণ


৫৫২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরকারিভাবে ল্যাপটপ বিতরণ

ভোলা জেলার ৭ উপজেলায় বিগত ও চলতি অর্থবছরে (২০১৬-১৭ থেকে ২০১৭-১৮) ৫৫২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরকারিভাবে ল্যাপটপ বিতরণ করা হয়েছে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস’র মাধ্যমে প্রত্যেক বিদ্যালয়ে একটি করে ল্যাপটপ প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্যে বিগত বছর দেওয়া হয়েছে ৮৯টি বিদ্যালয়ে ও চলতি অর্থবছরে বিতরণ করা হয়েছে সর্বাধিক ৪৬৩টি। মূলত আধুনিক, আকর্ষণীয় ও উন্নত ব্যবস্থায় শিক্ষা প্রদানের জন্য শিক্ষার্থীদের আগ্রহ সৃষ্টি করে পাঠদানই এই কার্যক্রমের উদ্দেশ্য। ফলে পড়া মুখস্থ করার চেয়ে ল্যাপটপের মাধ্যমে বড় পর্দায় তা দেখে আনন্দের সাথে আত্মস্ত করছে প্রাথমিক পর্যায়ের শিশুরা।
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আযম মুকুল বাসস’কে জানান, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তর করতে হলে সবার আগে শিক্ষা খাতের উন্নয়ন করতে হবে। তাই বর্তমান শিক্ষা বান্ধব সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে মাল্টিমিডয়া ক্লাস রুমের আওতায় আনার জন্যই এই ল্যাপটপ বিতরণ কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। তিনি আরো জানান, গত দুই অর্থবছরে সারা বাংলাদেশে মোট ৬২ হাজার ল্যাপটপ বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে। এসব ল্যাপটপ বিতরণের ফলে বাচ্চাদের লেখাপড়ার প্রতি আগ্রহ বৃদ্ধি ও ডিজিটাল বাংলাদেশে গড়তে সহায়তা করবে। পর্যায়ক্রমে দেশের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শতভাগ ল্যাপটপ বিতরণ করা হবে বলে জানান এমপি মুকুল।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, জেলার মোট ল্যাপটপ বিতরণের মধ্যে সদর উপজেলায় ১৬৩টি বিদ্যালয়ে বিতরণ করা হয়েছে। বোরহানউদ্দিনে ৮২টি, দৌলতখানে ৮২টি, লালমোহনে ৭৮টি, তজুমুদ্দিনে ৪৪টি, চরফ্যসনে ৯৩টি ও মনপুরায় ১০টি বিদ্যালয়ে বিতরণ করা হয়েছে।সূত্র: বাসস

মন্তব্য

উপর