logo

পবিত্র রমজানে নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি; হতাশ ভোক্তারা


পবিত্র রমজানে নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি; হতাশ ভোক্তারা

পবিত্র রমজানে পৃথিবীর অন্যান্য দেশে পণ্যের দাম কমানো হয়। অপরদিকে আমাদের দেশে এর উল্টো। রমজানে মানুষের ভোজের চাহিদার দুর্বলতাকে কাজে লাগিয়ে সারা বছরের মুনাফা একমাসেই কামিয়ে নিতে চান কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা। পাল্লা দিয়ে বাড়ানো হয় নিত্যপণ্যের দাম। আর এর প্রভাব হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলায়ও কম পড়েনি। সব্জির বাজার থেকে শুরু করে মাছ-মাংস, ডাল, পেয়াজের দাম নিম্ন বিত্ত্য ও মধ্যবিত্ত মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। এতে হতাশ হয়ে পড়েছেন বানিয়াচংয়ের ভোক্তারা। 

সরজমিনে বাজার ঘুরে দেখা যায়, আলো ১৫ টাকা কেজির বদলে বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা। বেগুন ৩৫ হাজার টাকার পরিবর্তে বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা কেজি। শসার কেজি সপ্তাহ আগেও ছিল ২৫ টাকা কেজি। বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা দরে। ঝিংগার কেজি ৩০ টাকা থেকে উঠে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়। কাঁচা মরিচ ২০ এর বদলে ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। পেঁয়াজের দাম কদিন আগেও ছিল ১৫ টাকা কেজি। বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা কেজি দরে। এছাড়া মাছ-মাংস,ডাল, দুধসহ অন্যান্য নিত্যপণ্যের দামও লাগামগহীনভাবে বেড়ে যাচ্ছে। দাম বাড়ার কারন হিসেব জানতে চাইলে অধিকাশ ব্যবসায়ী বলেন, রমজানকে সামনে রেখে পণ্যের চাহিদা বেশি। এছাড়া মজুদকারীরা পণ্যের কৃত্তিম সংকট তৈরী করেছেন। চাহিদার তুলনায় বাজারে পণ্য কম আসছে। তাই পণ্যের দাম বেড়েছে।

মন্তব্য

উপর