logo
Left-side-ad-projonmo.com
right float
শিরোনাম
app download

টাকার বিরোধে যুবক হত্যা, ৫ ঘন্টা মধ্যে বাবা-ছেলে আটক


টাকার বিরোধে যুবক হত্যা, ৫ ঘন্টা মধ্যে বাবা-ছেলে আটক

ময়মনসিংহ নগরীতে মাত্র ১০০ টাকার বিরোধের জেরধরে আশরাফুল ইসলাম রাব্বী (২৫) নামে এক যুবক হত্যাকান্ডের ৫ ঘন্টার মধ্যে মূলহুতা বাবা ও ছেলেকে আটক করেছে কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশ। আসামিরা হলেন, বাবা মনির হোসেন ও  তার বড় ছেলে বাবু।

মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ১১ টার দিকে ত্রিশাল উপজেলার ধানীখোলা এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

কোতোয়ালী মডেল থানার ইন্সপেক্টর অপারেশন (ওসি) খন্দকার শাকের আহমেদ এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছে। তিনি জানান, মাত্র ১০০ টাকার জন্য পূর্ব  শত্রুতার জের ধরে মঙ্গলবার সন্ধায় নগরীর গাঙ্গিনাপাড় এলাকায় রাব্বি নামে এক যুবককে এ্যালোপাথারী ওও গলা কেটে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার পরপর ওসি অপারেশনের নেতৃত্বে তাতক্ষনিক ভাবে অভিযান চালিয়ে ৫ ঘন্টার মধ্যে ত্রিশাল উপজেলা থেকে হত্যাকান্ডের মূল আসামী বাবা-ছেলেকে আটক করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, অভিযানের সময় সহযোগিতা করেছেন, এস আই মিনহাজ, নাজমুল, ও পলাশ। তবে এ হত্যাকান্ডের সঙ্গে অন্য যারা জরিত আছে, তাদের সবাইকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে পুলিশের অভিযান অব্যহত রয়েছে। এবিষয়ে একটি হত্যা মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানিয়েছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে ময়মনসিংহ নগরীর প্রাণকেন্দ্র গাঙ্গিনাপাড় ট্রাফিক মোড় এলাকায় পূর্বশত্রুতার জেরধরে মাত্র ১০০ টাকার জন্য আশরাফুল ইসলাম রাব্বী (২৫) নামে এক যুবককে এ্যালোপাথারী কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করা হয়। নিহত রাব্বী নগরীর নওমহল নন্দীবাড়ি এলাকার আব্দুল কদ্দুসের ছেলে। সে পেশায় একজন ব্যাটারী চালিত অটোররিক্সা চালক।  রাব্বীর সংসারে ১০ মাসের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে বলেও জানা গেছে।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানার ১নং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) চাঁন মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহত রাব্বী অটোরিক্সার ড্রাইভার। সে ঢাকা থেকে গত কয়েক দিন আগে ময়মনসিংহ এসে অটো চালানোর কাজের সন্ধান করছিল।

এদিকে নিহত রাব্বীর বড় বোন আল্পনা আক্তার অভিযোগ করে বলেন, গত রমজান মাসে রাব্বীর সাথে মনির নামে এক ড্রাইভার ও তার তিন ছেলে বাবু, পন্টি ও পাপেলের সঙ্গে একশত টাকা নিয়ে বিরোধ হয়। ওই ঘটনায় আদালতে একটি মামলাও চলছে। এরপর বেশ কয়েকদিন আগে আমার ভাইকে তারা ধরে নিয়ে মারধর করেন। পার উল্টা আমাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন মনির। মূলত ওই বিরোধের জের ধরেই আজ মনিরের ছেলে বাবু, পন্টি ও পাপেলের সহযোগীরা মিলে ছোট ভাই রাব্বীকে এ্যালোপাথারী কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করেছে। আমি ভাই হত্যার কঠিন শাস্তির দাবি করছি।

মন্তব্য

উপর