logo
Left-side-ad-projonmo.com
right float
শিরোনাম
app download

প্রার্থীতা ফিরে পেলেন যাঁরা


প্রার্থীতা ফিরে পেলেন যাঁরা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে প্রার্থিতা ফিরে পেতে আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে নির্বাচন কমিশনে আপিলের শুনানি শুরু হয়। দুপুর ১২ টা পর্যন্ত ৫০ জনের প্রার্থিতা নিয়ে শুনানি হয়। এর মধ্যে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন ২৫ জন। 

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে নির্বাচন কমিশনের অস্থায়ী এজলাসে এ শুনানি চলছে।

সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী নবাব মো. শামছুল হুদার মাধ্যমে শুনানি শুরু হয়। আপিলেও তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। এরপর আপিল আবেদনের সিরিয়াল অনুযায়ী একে একে প্রার্থীদের শুনানি গ্রহণ করা হচ্ছে।

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বগুড়া-৭ আসনে দলের মনোনীত বিকল্প প্রার্থী মোরশেদ মিলটনের আপিলের শুনানি। শুনানি শেষে তাঁর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়। এ সময় ঢাকা-১ আসনে খন্দকার আবু আশফাক ও ঢাকা-২০ আসনের তমিজ উদ্দিনও প্রার্থিতা ফিরে পান। তাঁরা দুজনই বিএনপির প্রার্থী।

আরও যাদের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে- সাতক্ষীরা-২ আসনে আফসার আলীর মনোনয়নপত্র, কিশোরঞ্জ-২ আসনে মেজর (অব) মো. আখতারুজ্জামানের মনোনয়ন, চাপাইনবাগঞ্জ-২ আসনের মো. তৈয়ব আলীর মনোনয়নপত্র, মোহাম্মদ শাহজাহান পটুয়াখালী-৩ আসন, সুমন সন্যামত পটুয়াখালী-১, জহিরুল ইসলাম মিন্টু মাদরীপুর-১ আসন, বৈধ। এস এম খলিলুর রহমান ঠাকুরগাঁও-৩ বাতিল। বৈধতা পেয়েছেন ফজলুর রহমান জয়পুরহাট-১ থেকে।

মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে জামালপুর-৪ আসনে মো. ফরিদুল কবির তালুকদার (শামীম) । তিনি বিএনপির প্রার্থী। পটুয়াখালী-৩ আসনে মোহাম্মদ শাহজাহান প্রার্থিতা ফিরে পান।

মাদারীপুর-১ আসনের জহিরুল ইসলাম মিন্টু এবং সিলেট-৩ আসনের আবদুল কাইয়ুম চৌধুরীও আপিল করে সফল হয়েছেন।

আপিলের ক্রমিক নম্বর ১ থেকে ১৬০ নম্বর পর্যন্ত আজ বৃহস্পতিবার শুনানি হবে। শুক্রবার ১৬১ থেকে ৩১০ নম্বর পর্যন্ত আপিল শুনানি হবে। শেষ দিন শনিবার বাকি সব আবেদন শোনা হবে। 

শুনানির জন্য নির্দিষ্ট কোনো সময় নেই। যতক্ষণ সময় লাগছে শুনানি ততক্ষণ হচ্ছে। আপিলের সঙ্গে সঙ্গে তাৎক্ষণিক রায়ও দেওয়া হচ্ছে।


দৈনিক প্রজন্ম ডট কম/জুনায়েদ

মন্তব্য

উপর