logo
শিরোনাম

আমার জন্য রাস্তায় শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে রাখা যাবে না : দুর্যোগব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী


আমার জন্য রাস্তায় শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে রাখা যাবে না :  দুর্যোগব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী

দুর্যোগব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন ঢাকা-১৯ আসনের এমপি ডা. এনামুর রহমানiঐতিহাসিক রানা ট্রাজেডির সেই মহা দুর্যোগ যখন রানা প্লাজা ধসে হাজার হাজার শ্রমিকের হতা হতে পরিণত হয়েছিল মৃত্যুমিছিলে সেই সময় সর্বশক্তি দিয়ে অসহায় শ্রমিকের পাশে দাঁড়ান ডাঃএনাম ও এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল,আর এই দুর্যোগ মুকাবেলার কৃতিত্ব সরূপ দায়িত্ব পান এ অঞ্চলের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের,মনোনীত হন ১০ম সংসদে সংসদীয় সদস্য হিসাবে।এবার এই একাদশ সংসদ নির্বাচনে রেকর্ড ভোটে পুনরায় নির্বাচিত হন ডাঃএনাম তবে এবার এ অঞ্চলের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের সাথে সাথে সমগ্র বাংলাদেশের দুর্যোগ মুকাবেলায় সাক্ষ্য রাখবেন কালের সাক্ষী ডাঃএনামুর রহমান এনাম।

সোমবার ৪৭ সদস্যের নতুন মন্ত্রিসভার অন্যান্য প্রতিমন্ত্রীদের সঙ্গে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির কাছে শপথ নেন তিনি।এই মন্ত্রণালয়ে কোনো পূর্ণমন্ত্রী না থাকায় প্রতিমন্ত্রী হয়েও দায়িত্ব পালন করবেন একজন পূর্নমন্ত্রীর।শপথ গ্রহণের উদ্দেশ্যে বঙ্গভবনে যাওয়ার আগে ডা. এনামুর রহমান দলীয় এবং জনসাধারণের কাছে ফেসবুকে তুলে ধরেন নীতি আর নৈতিকতার বহির্প্রকাশ।হুবাহু তুলে ধরা হল ফেসবুক স্ট্যাটাসটি, 

তিনি শুরুতেই লিখেন- দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের আগে আমার কিছু অনুরোধ-

#অনূগ্রহপূর্বক আমাকে কোনো ক্রেস্ট, ফুলের তোড়া, নৌকা, রূপা বা পিতলের তৈরি নৌকার রেপ্লিকা, কোট পিন, কোন মানপত্র বা উপঢৌকন প্রদান করবেন না।

#মানপত্রে লেখা থাকে, ‘হে মহান অতিথি, তোমার আগমনে ফুল, লতাপাতা, গুল্ম আজ আনন্দে আত্মহারা’ - এই ধরনের শব্দ ঢাহা মিথ্যা কথা। হাস্যকর।মানপত্রে যেসব তোষামোদপূর্ণ বাক্যের বর্ণনা থাকে তার ৯৫ ভাগই মিথ্যা, ভিত্তিহীন।

#আমার জন্য রাস্তায় শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে রাখা যাবে না। একেবারেই না।

#কোথাও কোনো শিক্ষার্থীদের লাইনে দাঁড় করিয়ে রাখলে আমি সেই অনুষ্ঠান বয়কট করব এবং প্রতিষ্ঠানপ্রধানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাগ্রহণের সুপারিশ করব।

#কোনো প্রতিষ্ঠান, সমিতি বা স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান ‘পাবলিক মানি’ ব্যয় করে আমাকে স্বাগত জানিয়ে কোনো গেট বা তোরণ নির্মাণ করা যাবে না।

#কোন অনিয়ম বা অবৈধ কাজের তদবির করা যাবে না।

#কোন অনুষ্ঠানে অযথা বিপুল অর্থ ব্যয় করে স্টেজ বানাবেন না। অনূগ্রহপূর্বক কৃচ্ছতা সাধন করবেন। অযথা অর্থের অপচয় থেকে বিরত থাকবেন।

#অনূগ্রহপূর্বক কোন অনুষ্ঠানে আপ্যায়নের নামে শিক্ষার্থী বা জনগণের টাকায় রকমারি খাবারের আয়োজন করা যাবে না।

মনে রাখবেন, আমি আপনাদের সেবক। জনগণের দয়ায় নির্বাচিত প্রতিনিধি। আপনারা সর্বোচ্চ ভোট দিয়ে আমাকে সংসদে পাঠিয়েছেন বলেই আমি আজ প্রতিমন্ত্রী। দেশ ও জনগণের জন্য কাজ করতে শপথগ্রহণ করেছি। আপনারা আমার জন্যে দোয়া করবেন। আমি যেন আমার ওপর অর্পিত দায়িত্ব ও কর্তব্য সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করতে পারি।


 দৈনিক প্রজন্ম ডটকম /  জা.আ

মন্তব্য

উপর