logo
Floating 2
Floating

আগুয়েরোর রেকর্ড হ্যাটট্রিকে চেলসিকে উড়িয়ে দিল সিটি


আগুয়েরোর রেকর্ড হ্যাটট্রিকে চেলসিকে উড়িয়ে দিল সিটি
তিন দিনের ব্যবধানে আবারও হ্যাটট্রিক করলেন সের্হিও আগুয়েরো। স্পর্শ করলেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে সর্বোচ্চ হ্যাটট্রিকের মালিক অ্যালান শিয়েরারকে। আর্জেন্টাইন তারকার দারুণ কীর্তি গড়ার দিনে চেলসির জালে গোল উৎসব করে প্রথম পর্বে হারের মধুর প্রতিশোধ নিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে রোববার স্থানীয় সময় বিকালে ৬-০ গোলে জেতে বর্তমান লিগ চ্যাম্পিয়নরা। জোড়া গোল করেন রাহিম স্টার্লিং। আরেক গোলদাতা ইলকাই গিনদোয়ান।

গত ডিসেম্বরে লিগের প্রথম পর্বে চেলসির মাঠে ২-০ গোলে হেরেছিল পেপ গুয়ার্দিওলার দল। সেটাই ছিল এবারের লিগে দলটির প্রথম পরাজয়।

শুরু থেকে আক্রমণাত্মক খেলা সিটি ২৫ মিনিটের মধ্যেই চার গোল করে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয়।  

চতুর্থ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনের পাস ধরে জোরালো শট নেন বের্নার্দো সিলভা। বল চেলসি ডিফেন্ডার দাভিদ লুইসের পায়ে লেগে বাঁ দিকে পেয়ে যান রাহিম স্টার্লিং। জোরালো শটে দলকে এগিয়ে দেন ইংলিশ এই মিডফিল্ডার।

এরপর ছয় মিনিটের ব্যবধানে দুটি গোল করেন আগুয়েরো। ত্রয়োদশ মিনিটে সতীর্থের ছোট পাস পেয়ে প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে বুলেট শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার।

আগুয়েরোর দ্বিতীয় গোলটি আসে ডিফেন্ডারদের ভুলে। প্রতিপক্ষের একটি আক্রমণ ডিফেন্ডাররা ঠিকমতো ফেরাতে পারেননি। উল্টো চেলসির ইংলিশ ডিফেন্ডার রস বার্কলি অবাক করে দিয়ে হেডে ছোট ডি-বক্সের মুখে বল বাড়ান। আর দারুণভাবে বাঁ পায়ের শটে গোলরক্ষক কেপা আরিসাবালাগাকে পরাস্ত করেন আগুয়েরো।


 


২৫তম মিনিটে সিটির চতুর্থ গোলেও দায় রয়েছে অতিথিদের রক্ষণভাগের। ডি-বক্সে তারা বল ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে পেয়ে যান গিনদোয়ান। ২২ গজ দূর থেকে জোরালো শটে বল ঠিকানায় পাঠান জার্মান মিডফিল্ডার।


দ্বিতীয়ার্ধের একাদশ মিনিটে স্পট কিকে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন আগুয়েরো। ডি-বক্সে স্টার্লিংকে ডিফেন্ডার সেসার আসপিলিকুয়েতা ফাউল করলে পেনাল্টিটি পায় তারা। এরই সঙ্গে আসরে ১৭ গোল নিয়ে গোলদাতার তালিকায় যৌথভাবে মোহামেদ সালাহর সঙ্গে শীর্ষে উঠলেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

গত রোববার আর্সেনালের বিপক্ষে ৩-১ ব্যবধানে জেতা ম্যাচে দলের সবকটি গোলই করেছিলেন আগুয়েরো।

প্রিমিয়ার লিগে এ নিয়ে ১১টি হ্যাটট্রিক করলেন আর্জেন্টাইন এই তারকা। সমান সংখ্যক হ্যাটট্রিক করে প্রতিযোগিতার ইতিহাসে এতদিন রেকর্ডটির একা মালিক ছিলেন ইংল্যান্ডের শিয়েরার। চলতি মৌসুমে এ নিয়ে তৃতীয় হ্যাটট্রিক করলেন আগুয়েরো; সিটির হয়ে সব মিলিয়ে করলেন ১৫ হ্যাটট্রিক।

আর ৮০তম মিনিটে সতীর্থের বাড়ানো ক্রস ছোট ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে প্লেসিং শটে চেলসির কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন স্টার্লিং। চলতি লিগে এটা তার দ্বাদশ গোল।

লিগে শেষ চার ম্যাচে চেলসির এটি তৃতীয় পরাজয়। আর্সেনাল ও বোর্নমাউথের কাছে হারের পর গত সপ্তাহে হাডার্সফিল্ড টাউনের বিপক্ষে ৫-০ গোলে জিতেছিল উনাই এমেরির দল।


 


২৭ ম্যাচে ২১ জয় ও দুই ড্রয়ে শীর্ষে ফেরা ম্যানচেস্টার সিটির পয়েন্ট ৬৫।


শনিবার বোর্নমাউথকে ৩-০ গোলে হারানো লিভারপুলের পয়েন্টও ৬৫। তবে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেমে গেছে তারা। অবশ্য একটি ম্যাচ কম খেলেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। 

দিনের প্রথম ম্যাচে লেস্টার সিটিকে ৩-১ গোলে হারানো টটেনহ্যাম হটস্পার ৬০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে।

শনিবার ফুলহ্যামকে ৩-০ গোলে হারানো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৫১ পয়েন্ট নিয়ে আছে চার নম্বরে।

দিনের অন্য ম্যাচে হাডার্সফিল্ড টাউনকে ২-১ গোলে হারানো আর্সেনাল ৫০ পয়েন্ট নিয়ে উঠেছে পঞ্চম স্থানে। সমান পয়েন্ট নিয়ে এক ধাপ নেমে ষষ্ঠ স্থানে আছে চেলসি।

মন্তব্য

উপর