logo
Floating 2
Floating

চুকনগরে পিকনিকের বাস খাদে পড়ে নিহত ১,আহত ৩০।


চুকনগরে পিকনিকের বাস খাদে পড়ে নিহত ১,আহত ৩০।

ইমরান হুসাইন,চুকনগর: চুকনগরে পিকনিকের বাস খাদে পড়ে এক কিশোরী নিহতসহ ৩০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার সকাল ১১টায় খুলনা-মহাসড়কের ডুমুরিয়া উপজেলার চাকুন্দিয়া মাদ্রাসার সন্নিকটে দূর্ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ ও আহতরা জানায়, সোমবার সকালে যশোর সদরের শ্যামনগর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় (প্রস্তাবিত যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল এ্যান্ড কলেজ) থেকে শিক্ষক, শিক্ষার্থী সহ ১৯৮ জন যাত্রী তিনটি বাস যোগে বাগেরহাট ষাট গম্বুজ মসজিদের উদ্দেশ্যে শিক্ষা সফরে রওনা হয়। এর মধ্যে দুটি বাস কিছুটা আগে চলে যায়। শেষ বাসটি (ঢাকা মেট্রো-ট-১৪-০০৯৫) চুকনগর বাসষ্ট্যান্ড থেকে খুলনা অভিমুখে দুই কিলোমিটার দুরে চাকুন্দিয়া জামিয়া ইমদাদুল উলুম মাদ্রাসার সামনে পৌছুলে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে পার্শ্ববর্তী খাদে পড়ে সম্পূর্ণ উল্টে যায়। 

এ ঘটনায় ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী মেঘলা (১৪) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। সে যশোর সদর উপজেলার সদর উদ্দিনের কন্যা বলে জানা যায়। দূর্ঘনায় প্রায় ৩০ জনের মত আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। আহতদের ১৫ জনকে মুমুর্ষ অবস্থায় প্রথমে ডুমুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। এদের মধ্যে তাৎক্ষনিকভাবে ৪জনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। তারা হলেন, ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষক মনিরুল ইসলাম (৪০), রেশমা বেগম (৩০), শিক্ষার্থী আব্দুল­াহ (১১) এবং জেবা খাতুন (১৬)। 

এছাড়া ডুমুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ১১জন হলেন, আয়া আমেনা বেগম (৪৫), শিক্ষার্থী রিমা (১৪), লাবনী (১৪), খাদিজা (১৫), জিনিয়া (১৩), টুম্পা (১২), মাসুরা (১৩), সুমাইয়া (১৪),মমতাজ (১৫) নিলা (১৩) এবং আফরোজা (২০)। এ ছাড়া শিরিনা, রাফিয়া, নিলা সহ আরও ১২/১৩ জন আহত হয়। তাদেরকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। বিদ্যালয়ের শিক্ষক রামকৃষ্ণ বিশ্বাস এবং সহকারী গ্রন্থাগারীক মোঃ রহমত আলী জানান, পিকনিকের তিনটি বাসের মধ্যে দুটো কিছুদুর আগে চলে গেছে। আর এই বাসে শিক্ষক ও শিক্ষার্থী মিলে মোট ৬৯জন যাত্রী ছিল। কিভাবে কি হয়ে গেল কিছুই বুঝতে পারিনি। দূর্ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা বাসের ভিতর থেকে যাত্রীদের উদ্ধার করতে শুরু করে। পরে ডুমুরিয়া থেকে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি এসে গাড়ি এসে আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিহত মেঘলার লাশ চুকনগর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা ছিল।

মন্তব্য

উপর