logo
Floating 2
Floating

‘বিএনপি জামায়াত’ কেউ কাউকে ছাড়বে না: কাদের


‘বিএনপি জামায়াত’ কেউ কাউকে ছাড়বে না: কাদের

বিএনপি-জামায়াত সাম্প্রদায়িক দল, একটু কম আর বেশী, তারা কেউ কাউকে ছাড়বে বলে মনে হয় না। এমন মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সকালে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘এটা আমার কাছে মনে হয় না। বিএনপি জামায়াতকে, অথবা জামায়াত বিএনপিকে ছাড়বে, এটা হলেও কৌশলগত হতে পারে। এমনটি আমার হিসেবে আসে না।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘তাদের (বিএনপি-জামায়াত) চিন্তা ভাবনা, তারা যেই চেতনা ধারণ করে সেক্ষেত্রে তারা অনেক কাছাকাছি। দুটিই সাম্প্রদায়িক দল। দুটির চেতনা একই। কোনটা লিবারেল, কোনটা এক্সট্রিম।’

উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির অংশ নেয়া নিয়ে জানতে চান সাংবাদিকরা। প্রতিউত্তরে তিনি বলেন, ‘জাতীয় নির্বাচনে বিএনপির মতো বড় দল অংশ না নিলে নির্বাচন ইনক্লুসিভ নিয়ে সংশয় থাকে, দেশে বিদেশে প্রশ্ন আসে। স্থানীয় নির্বাচনে কে আসল, কে বয়কট করল তা নিয়ে মাথাব্যাথা নেই।’

বলেন ‘অনেকে দলীয় প্রতীকে না করে স্বতন্ত্র নির্বাচন করতে পারে। অনেক জায়গায় তারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবে। তারা এলে ভালো, না এলেও প্রতিদ্বন্দ্বির অভাব নেই।’

বিএনপি বলছে ডাকসু নির্বাচনও সরকার এক তরফাভাবে করবে এ বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ডাকসু নির্বাচনে ছাত্রদল অংশ নেবে না, এটা তারা এখনো ঘোষণা দেয়নি। আপাতত দাবি দাওয়ার পক্ষে কিছু কিছু স্ট্যান্ড দলগতভাবে থাকতে পারে। বিএনপির টানাপোড়েন আছে।

তবে তারেক রহমান যা বলবে ছাত্রদল সেটিই মেনে নেবে। ছাত্রদল তারেক রহমান অনুগত শুরু থেকেই। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের কথাই তারা শুনবে বলে আমি মনে করি। ডাকসু নির্বাচনে কারচুপির সুযোগ নেই।’

বৈঠকে সড়ক দুর্ঘটনাকে এখন সবচেয়ে বড় দুর্ঘটনা বলে উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের বৈঠক ডেকে কিছু পদক্ষেপের বিষয়ে আলোলোচনা করব। দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য যারা বিশেষজ্ঞ আছেন, তাদের নিয়ে কমিটি করে দেবো। এর লাগাম টেনে ধরতে হবে।

সড়কে বিশৃঙ্খলার জন্য শক্তিশালী মহল দায়ি এমন এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি নিজে মন্ত্রী হয়েও দায় এড়াতে পারি না। মেট্রো রেল, পাতাল রেলসহ যেসব কাজ হচ্ছে এতে অনেক সমস্যাই সমাধান হয়ে যাবে। বিভিন্ন সড়কে কাজ চলছে, সেগুলো হলে অনেক সমস্যাই কমে যাবে। এখন দুর্ঘটনার সংখ্যা কম, কিন্তু নিহতের সংখ্যা বেশি।


09@দৈনিক প্রজন্ম ডটকম /  জা.আ

মন্তব্য

উপর