logo
Floating 2
Floating
শিরোনাম

সুনামগঞ্জের জাস্টিন ট্রুডো মেয়র নাদের বখত


সুনামগঞ্জের জাস্টিন ট্রুডো মেয়র নাদের বখত

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মেয়র নাদের বখত পরিকল্পনা, গৃহিত পদক্ষেপ এবং
বাস্তবায়িত সামাজিক উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে কানাডার প্রেসিডেন্ট
জাস্টিন ট্রুডোর সাথে তুলনা করেছেন প্রকৃতি প্রেমিক, বিশিষ্ট ন্যাচারাল
ফটোগ্রাফার, প্রশান্ত কুমার সরকার । বিশ্ব সংকট করোনা মোকাবেলায়
সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়েও পৌরবাসীকে
সচেতন করার জন্য রাস্তায় নেমেছেন, দাঁড়িয়েছেন সর্বস্তরের জনগণের পাশে।
বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন প্রয়োজনীয় সকল কর্মসূচী। এসব কর্মসূচী নাগরিক
সেবায় নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত হয়ে
থাকবে সুনামগঞ্জ পৌরসভার তথা বিশ্ব ইতিহাসে। ২০১৯ সালে সারাদেশে যখন
ডেক্সগু মহামারী আকার ধারণ করে, তখন আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ায় ৩ লাখ, মৃতের
সংখ্যা ছাড়িয়ে যায় শতাধিক। সে সময় সুনামগঞ্জ পৌরসভায় ১ জনও ডেক্সগুতে
আক্রান্ত হয়নি। এডিস মশার বিস্তার রোধে রেখে ছিলেন বৈপ্লবিক ভুমিকা। মেয়র
নাদের বখতের ঐকান্তিক পরিশ্রম, প্রচেষ্টা, সঠিক কর্মপরিকল্পনা ও যথাযথ পদক্ষেপ
গ্রহণের ফলে সুনামগঞ্জ পৌরসভা স¤পূর্ণভাবে ডেক্সগু মুক্ত রাখা সম্ভব হয়েছিল।
করোনা নিয়ে সচেতন হওয়ার আহŸান জানিয়ে মেয়র বলেন, সারা বিশ্ব করোনা
ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়েছে। আসুন আমরা করোনা ভাইরাস নিয়ে আতংকিত
না হয়ে সচেতন হই। একমাত্র সচেতনতাই পারে এ ভাইরাসের সংক্রমণ ও ক্ষতি কমাতে।
নাগরিকদের করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা ও তাদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির
লক্ষ্যে ব্যতিক্রমী নানা উদ্যোগ নিয়েছেন মেয়র নাদের বখত। করোনা প্রতিরোধে
প্রতিদিন ভিন্ন ভিন্ন উপায়ে কাজ করে যাচ্ছে সুনামগঞ্জ পৌরসভার বিশেষ
টিম। বাস্তবায়িত কর্মসূচীর মধ্য রয়েছে – সুনামগঞ্জ পৌরসভায় স্থাপিত
করোনা সেল। হটলাইনের মাধ্যমে এই সেল থেকে সরবরাহ করা হচ্ছে করোনা বিষয়ে
নানান তথ্য। পাশাপাশি পৌর নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে, প্রতিটি পয়েন্টে হাত
ধোয়ার জন্য পানি ও সাবানের ব্যবস্থা । সবার মাঝে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার , স্বেচ্ছাসেবকদের মাঝে পিপিই বিতরণ ও অসহায় দিন মজুর মানুষের ঘরে ঘরে
খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন। এ যেন এক মানবতার ফেরিওয়ালা। শুধু তাই নয়, শহরের
রাস্তা-ঘাট, ড্রেন-ফুটপাথ, পাড়া-মহল্লাসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রাতিষ্ঠানিক ও
বাণিজ্যিক স্থাপনায় জীবাণুনাশক তিনি নিজে ছিটিয়ে দিচ্ছেন। নাগরিক
সচেতনতায় হ্যান্ডবিল ও লিফলেট বিতরণ করছেন। করোনা প্রতিরোধে মাইকে
প্রচারণা সহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন। করোনা ভাইরাস আতংকে কারো কোন
দায়বদ্ধতা যেন নেই,সবাই ঘরে ঢুকে পড়েছে । ফায়ার সার্ভিসের গাড়িও
নেই,নেই কোনো সরঞ্জামাদি। সবাই যখন থমকে সরে গেলেন। থেমে নেই
সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত, সুনামগঞ্জ পৌরসভার লাশবাহী গাড়ি ও
অন্যান্য সরঞ্জামাদি নিয়ে নিজেই নগর বাসীর নিরাপত্তার জন্য নগরের গুরুত্বপূর্ণ
সড়ক, পুরাতন কোর্ট, ট্রাফিক পয়েন্ট হতে নতুন কোর্ট ও পৌর এলাকার
রাস্তাঘাট জীবানু ধ্বংসের জন্য বিøচিং পাউডার মিশ্রিত পানি দিয়ে ধুইয়ে
দিচ্ছেন। তিনি নগরের গুরুত্বপূর্ণ সড়কে বিøচিং পাউডার মিশ্রিত পানি
ছিটিয়ে সড়কের করোনা ভাইরাস জীবাণু ধ্বংসের জন্য অবিরাম কাজ করে
চলেছেন। অথচ কারো কোন দায়বদ্ধতা যেন নেই। সবাই ঘরে ঢুকে পড়েছে। নিত্য
প্রয়োজনে সাধারন মানুষকে কোননা কোন কাজে বাইরে বের হতে হয়। মেয়র
জানালেন কোরনা আক্রান্ত কোন ব্যক্তি যদি থুথু ফেলে তাহলে সেই ভাইরাস ছড়িয়ে
যেতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে নগরের প্রধান প্রধান সড়কের জীবানুমুক্ত রাখতে এ
ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। যতদিন এ পরিস্থিতির উন্নতি না হয়, ততদিন পৌরসভার
সড়ক, রাস্তাঘাট জীবানুমুক্ত রাখতে যা যা করা দরকার, তাই করা হবে। করোনা
ভাইরাস দ্রæত সংক্রমন হয় বিধায় সচেতনতার বিকল্প নেই। তিনি বলেন পৌরসভার
গাড়ী দিয়ে নগরের প্রধান প্রধান সড়ক ধোয়া অব্যাহত থাকবে।

মন্তব্য

উপর