logo
Floating 2
Floating

মাগুরায় ধর্ষণের শিকার গৃহবধুর পরীক্ষা সম্পন্ন: অভিযুক্তদের আটক করতে পারেনি পুলিশ


মাগুরায় ধর্ষণের শিকার গৃহবধুর পরীক্ষা সম্পন্ন: অভিযুক্তদের আটক করতে পারেনি পুলিশ

মাগুরায় বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক গৃহবধু। এব্যাপারে মাগুরা সদর থানায় মামলা হলেও এখন পর্যন্ত অভিযুক্তদের আটক করতে পারেনি পুলিশ। ইতি মধ্যে ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধুর ডাক্তারি পরিক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। ঈদের ছুটিতে ঢাক থেকে মাগুরায় প্রতিবেশীর বাড়িতে বেড়াতে আসা এক পোষাক শ্রমিক শনিবার রাতে ধর্ষণের শিকার হয়। মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার বারাশিয়া গ্রামে এ ধর্ষণের  ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে রবিবার মাগুরা সদর থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অপহরণ করে ধর্ষণ ও ধর্ষণের সহায়তা এবং নগ্ন ছবি ও ভিডিও চিত্র ধারণ সেই সাথে চাঁদা দাবির অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন আইন এবং পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের হয়। সোমবার ধর্ষণের শিকার ওই নারীর ডাক্তারি পরিক্ষা সম্পন্ন করা হয় । তবে এখন পর্যন্ত পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।


মামলার এজাহারে জানা গেছে, ঢাকায় মিরপুর এলাকার একটি ফ্ল্যাটে সাবলেট হিসেবে ভাড়া থাকেন ধর্ষণের শিকার ওই নারী ও তাঁর স্বামী। একই বাসায় ভাড়া থাকার সুবাদে ফ্ল্যাটের বাসিন্দাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে ওঠার সুবাদে প্রতিবেশী ওই পরিবারটির সাথে ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে মাগুরায় বেড়াতে আসেন ঘটনার শিকার ওই নারী।


শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে স্বামীর সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলতে বলতে বাড়ির বাইরে আসেন তিনি। ভারাশিয়া গ্রামের আয়ুব মোল্লার ছেলে লিটু মোল্লা (২৭), মুরাদ মোল্লার ছেলে রেজোয়ান মোল্লা (২১) ও সাইফুল বিশ্বাসের ছেলে শামিম বিশ্বাস (২১) নামে তিন যুবক তাঁকে মুখ চেপে ধরে জোর করে পাটক্ষেতে নিয়ে যান। এর পর সেখানে লিটু মোল্লা তাঁকে ধর্ষণ ও ধর্ষণের পর নগ্ন ছবি এবং ভিডিওচিত্র ধারণ করে। পরে ওই নারীর স্বামীকে ফোন করে ইন্টারনেটে ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবি করে  লিটু মোল্লা।


মাগুরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, অপহরণ করে ধর্ষণ ও ধর্ষণের সহায়তা এবং নগ্ন ছবি ও ভিডিও চিত্র ধারণ সেই সাথে চাঁদা দাবির অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন আইন এবং পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। সোমবার ধর্ষণের শিকার ওই নারীর ডাক্তারি পরিক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। পুলিশ অপরাধীদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে ।

মন্তব্য

উপর