logo
Floating 2
Floating
শিরোনাম

জরুরি ভিত্তিতে বিমানে আনা হচ্ছে পিয়াজ


জরুরি ভিত্তিতে বিমানে আনা হচ্ছে পিয়াজ

দফায় দফায় দাম বেড়ে রাজধানীর কাঁচাবাজারে এখন সব থেকে বেশি দামের পণ্যের তালিকায় সবার ওপরে স্থান করে নিয়েছে পেঁয়াজ। পেঁয়াজ যেন অপ্রতিরোধ্য। সপ্তাহের ব্যবধানে তিন দফায় কেজিতে ১০০ টাকা বেড়ে এখন পেঁয়াজের দাম ২৭০ টাকায় পৌঁছেছে। এ অবস্থায় দেশে পেঁয়াজের সরবরাহ ও মূল্য স্বাভাবিক রাখতে রোববার (১৭ নভেম্বর) থেকে জরুরিভিত্তিতে কার্গো বিমানে করে পেঁয়াজ আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

সরকারিভাবে টিসিবি'র মাধ্যমে সরাসরি তুরস্ক থেকে, এস আলম গ্রুপ মিসর থেকে, বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান আফগানিস্তান, সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে এই পিয়াজ আনবে।

প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। অতি অল্প সময়ের মধ্যে পর্যাপ্ত পিয়াজ বাজারে সরবরাহ করা সম্ভব হবে।

এছাড়া সমুদ্র পথে আমদানিকৃত পিয়াজ বাংলাদেশের পথে রয়েছে, যা অতি শিগগিরই পিয়াজের বড় চালান বাংলাদেশে এসে পৌঁছাবে।

এছাড়াও সম্প্রতি ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে টেকনাফ স্থলবন্দর, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরসহ বিভিন্ন স্থানে পিয়াজ পরিবহনে কয়েকদিনের জন্য সমস্যা হয়েছিল। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় হতে এ পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য জরুরি ভিত্তিতে উল্লিখিত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

আশা করা হচ্ছে খুব কম সময়ের মধ্যে পর্যাপ্ত পিয়াজ বাজারে চলে আসবে এবং মূল্য স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

শুক্রবার বিকালে বাণিজ্য সচিব ড. জাফর উদ্দীন জানান, যতদিন পর্যন্ত বাজার স্বাভাবিক না হবে, ততদিন এয়ার কারগোতে পিয়াজ আমদানি করা হবে।   

সচিব বলেন, সরকারিভাবে পিয়াজ আমদানির জন্য একজন উপ-সচিবকে তুরস্কে পাঠানো হচ্ছে। এছাড়া আরও একজন উপ-সচিব মিশরে রয়েছেন।

মন্তব্য

উপর