logo
Floating 2
Floating
শিরোনাম

বরিশাল ও পটুয়াখালীতে চলমান ধর্মঘট প্রত্যাহার


বরিশাল ও পটুয়াখালীতে চলমান ধর্মঘট প্রত্যাহার

সড়ক পরিবহনের নতুন আইন কার্যকর করার প্রতিবাদে বরিশাল ও পটুয়াখালীতে চলমান ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে। আজ বুধবার সকাল থেকে বরিশাল ও পটুয়াখালীর অভ্যন্তরীণ সব পথে বাস চলাচল শুরু হয়েছে। এতে যাত্রীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

কর্মবিরতি প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরিশাল জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। তিনি বলেন, গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে বরিশালের পরিবহনশ্রমিকদের ডাকা অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি আজ বুধবার সকালে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এরপর থেকে বাস চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, কাল বৃহস্পতিবার থেকে দুই দিন (২১ ও ২২ নভেম্বর) শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভা রয়েছে। সভায় যে সিদ্ধান্ত হবে, সে অনুযায়ী তাঁরা পরবর্তী কর্মসূচি দেবেন।

বেলা ১১টার দিকে নগরের নথুল্লাবাদ কেন্দ্রীয় বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায়, সেখান থেকে অভ্যন্তরীণ সব পথে বাস চলছে। বাস চলাচল স্বাভাবিক হওয়ায় যাত্রীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

আবুল হাসান নামের এক যাত্রী বলেন, মঙ্গলবার আকস্মিক বাস চলাচল বন্ধ হওয়ায় দুর্ভোগে পড়ে অনেক যাত্রী। ধর্মঘট প্রত্যাহার করায় তাঁদের দুর্ভোগ কমেছে।

বুধবার ভোর থেকে পটুয়াখালীর সব রুটে বাস ধর্মঘট শুরু হয়। চার ঘণ্টা পর বাস চলাচল শুরু হয়।

বাস শ্রমিকেরা জানায়, কেন্দ্রীয়ভাবে ধর্মঘট শুরু হওয়ায় পটুয়াখালীতে বাস চলাচল বন্ধ বন্ধ রাখা হয়। বাস চলাচল চার ঘণ্টা বন্ধ থাকায় যাত্রীরা বিকল্প যান হিসেবে ভাড়ায় মোটরসাইকেল, ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক, অটো রিকশায় গন্তব্যে পৌঁছায়। সকাল ১০টার পর শ্রমিকেরা বাস চলাচল শুরু করেছেন।

পটুয়াখালীর বাসমালিক রিয়াজ উদ্দিন মৃধা জানান, বাসচালক ও শ্রমিকেরা নতুন সড়ক পরিবহন আইনটি সংশোধনের দাবিতে পটুয়াখালীর বাস ধর্মঘট শুরু করেছিলেন। এই আন্দোলন শ্রমিকদের। এখন বাস চলাচল শুরু হয়েছে।

পটুয়াখালীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) এবং বাসমালিক গ্রুপ সংগঠনের প্রশাসক মো. জিয়াউর রহমান বলেন, বাস চলাচল বন্ধ থাকার বিষয়টি তাঁদের জানা নেই। তবে এখন জেলার সব রুটে বাস চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

মন্তব্য

উপর