logo
Floating 2
Floating
শিরোনাম

৬ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে বাংলাদেশ; মুমিনুল ০, মিঠুন ০, মুশফিক ০


৬ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে বাংলাদেশ; মুমিনুল ০, মিঠুন ০, মুশফিক ০

কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে শুক্রবার (২২ নভেম্বর) বাংলাদেশ এবং ভারতের অভিষেক ঘটছে গোলাপি বলের ক্রিকেটে। অর্থাৎ সিরিজের দ্বিতীয় এবং শেষ টেস্টের মধ্য দিয়েই দিবারাত্রির টেস্টে অভিষেক ঘটছে দু'দলেরই। টাইগারদের হয়ে উদ্বোধনী জুটিতে ব্যাট করতে নামেন ইমরুল কায়েস এবং সাদমান ইসলাম। এই রিপোর্ট লেখা অবধি ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেটে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬৪ রানে। উইকেটে আছেন, নাইম হাসান (০) এবং লিটন দাস (১৫) ।

মাহমুদউল্লাহর খোঁচা, উইকেটের পেছনে বাজপাখির মতো ছোবল দিয়ে ঋদ্ধিমান সাহার অসাধারণ ক্যাচ। বাংলাদেশের আরেকটি উইকেটের পতন।

বাংলাদেশের ব্যাটিং ইনিংসের সপ্তম ওভারের প্রথম ইমরুলের বিরুদ্ধে বলে কট বিহাইন্ডের আবেদন করেন বোলার ইশান্ত শর্মা। আম্পায়ার আউট দিলে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন ইমরুল। রিভিউতে দেখা যায় বল ইমরুলের ব্যাট নয় ছুঁয়েছে থাই প্যাড। এ যাত্রায় তাই রক্ষা পান  চার রানে ব্যাট করতে থাকা ইমরুল। তবে এই ওভারেরই তৃতীয় বলে এলবি'র আবেদন ভারতের। এবারেও আঙুল তুলে আউট বলে দিলেন আম্পায়ার। এবারেও রিভিউ নিলেন ইমরুল। তবে এবার আর রক্ষা পাননি। ইশান্তের বলে চার রান করে দলীয় মাত্র ১৫ রানেই সাজঘরে ফিরতে হয়েছে ইমরুলকে।

পরের ওভারে আরও ভয়ংকর হয়ে আসে ভারতীয় পেসাররা। বলে তুলে নেন মোহাম্মদ শামি তাকে খেলছেন সাদমান। ওভারের দ্বিতীয় বলে আবারও কট বিহাইন্ডের আবেদন ভারতের। তবে এবার অনড় আম্পায়ার আউট নন বলে! বাধ্য হয়ে রিভিউ নিলেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। রিভিউতে দেখা মিলল বল ছুঁয়ে গেছে থাই প্যাডে। আর তাতেই ১০ রানে ব্যাট করতে থাকা সাদমান বেঁচে যান।

ইনিংসের ১১তম ওভারের প্রথম বলে উমেষ যাদবের বলে রানের খাতা না খুলেই ফিরে যান টাইগার অধিনায়ক মুমিনুল হক। স্লিপে দাঁড়ানো রোহিত শর্মা দারণ এক ক্যাচ নেন। এরপর উইকেটে আসেন মোহাম্মদ মিঠুন। ওই ওভারেরই তৃতীয় বলে হাঁটেন অধিনায়কের দেখানো পথে। মিঠুনও আউট হন শূন্য রানে।

এক ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে টাইগার শিবির। উইকেটে আসেন অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম। তবে হতাশ করলেন দলের সেরা এবং সব থেকে অভিজ্ঞ মুশফিকও। ১২তম ওভারের পঞ্চম বলে মোহাম্মদ শামির বলে বোল্ড হয়ে শূন্যতেই ফেরেন মুশি। আর দলীয় সংগ্রহ ৪ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৭ রান।

মাত্র ১৭ রানে চার উইকেট হারিয়ে যখন ধুঁকছে তখন সাদমানের ব্যাটে ভর করে কিছুটা স্বপ্ন বুনছিল টাইগার সমর্থকরা। তবে ইনিংসের ১৫তম ওভারে উমেষ যাদবের তৃতীয় শিকার হয়ে ফেরেন সাদমানও। ব্যক্তিগত ২৯ রানে ঋদ্ধিমান সাহার হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফিরে যান এই ওপেনার। সাদমান যখন ফিরে যান দলীয় রান তখন ৫ উইকেট হারিয়ে ৩৮।

এর আগে টস জিতে ইডেন গার্ডেনসে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন টাইগার অধিনায়ক মুমিনুল হক। ইন্দোর টেস্ট দল থেকে বাদ পড়েছেন তাইজুল ইসলাম এবং মেহেদী হাসান মিরাজ। এই দুইজনের জায়গায় দলে এসেছেন নাইম হাসান এবং আল আমিন। অন্যদিকে অপরিবর্তিত দল নিয়েই মাঠে নেমেছে ভারতীয় দল।

টসের পর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং পশ্চিম বঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে ক্রিকেটারদের পরিচয় করিয়ে দেন দুই দলের অধিনায়ক মুমিনুল হক এবং বিরাট কোহলি। দিবারাত্রির টেস্ট দেখতে শুক্রবার (২২ নভেম্বর) সকাল ১০টা ২৩ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী উড়োজাহাজ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন। 

পরে বাংলাদেশ সময় সকাল ১১টার দিকে পৌঁছেছেন কলকাতায়। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) নতুন সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী তাকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা ও ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

বিমানবন্দর থেকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে যাওয়া হয় ইডেন গার্ডেনসে। সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে ঘণ্টা বাজিয়ে ম্যাচের উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা। এরপরে খেলার প্রথম সেশন উপভোগ করে মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেবেন তিনি। তারপর মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতেও মিলিত হবেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসু বিমানবন্দরে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী ও বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন

বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যকার চলমান সিরিজের প্রথম টেস্ট জিতে ১-০ তে এগিয়ে আছে স্বাগতিক ভারত। এই সিরিজ দিয়ে বাংলাদেশের বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে অভিষেক ঘটেছে। আর সিরিজের শেষ ম্যাচে দিবারাত্রির টেস্টে অভিষেক ঘটছে দুই দেশেরই।

বাংলাদেশ একাদশ: ইমরুল কায়েস, সাদমান ইসলাম, মোহাম্মদ মিঠুন, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), আবু জায়েদ রাহী, এবাদত হোসেন, আল-আমিন এবং নাইম হাসান।

ভারত একাদশ: মায়াঙ্ক আগারওয়াল, রোহিত শর্মা, চেতেশ্বর পূজারা, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), আজিঙ্কা রাহানে, রবীন্দ্র জাদেজা, ঋদ্ধিমান সাহা (উইকেটরক্ষক), রবীচন্দ্রন আশ্বিন, উমেষ যাদব, মোহাম্মদ শামী, ইশান্ত শর্মা।

মন্তব্য

উপর