logo
Floating 2
Floating
শিরোনাম

এক ক্লিকে জেনে নিন ঝিনাইদহে খবর


এক ক্লিকে জেনে নিন ঝিনাইদহে খবর

শৈলকুপায় সাংবাদিক মফিজকে কুপিয়ে জখম

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় মফিজুল ইসলাম নামের এক সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম করেছে দূর্বৃত্তরা। ঘটনাটি সোমবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার ধলহরাচন্দ্র গ্রামে। মফিজুল ইসলাম দৈনিক নয়াদিগন্ত ও লোকসমাজ পত্রিকার শৈলকুপা উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত আছেন। তাকে উদ্ধার করে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পরিবারের সদস্যরা। এ সময় তার ক্যামেরা, মোবাইল ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয় দুর্বৃত্তরা। আহত মফিজুল ইসলাম অভিযোগ করেন, সোমবার সকালে তিনি পেশাগত দায়িত্ব পালনে নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে একটু দুরে গেলেই ধলহরাচন্দ্র গ্রামের ধীরেন মন্ডলের ছেলে সঞ্জয়, সাধন, অজয় এবং একই গ্রামের সুভাস, সুজন ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার উপর হামলা চালায়। এ সময় তারা হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মফিজের মাথায় আঘাত করে। এতে তার মাথা কেটে যায়। পরে খবর পেয়ে তার পরিবারের সদস্যরা মফিজকে উদ্ধার করে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বজলুর রহমান বলেন, তিনি ঘটনাটি শুনেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। 

দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে ওসি সাংবাদিকরে আশ্বস্ত করেন। এদিকে শৈলকুপা প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি সাংবাদিক মফিজুল ইসলাম মফিজের উপর সন্ত্রাসী হামলা তীব্র নিন্দা জানিয়েছে শৈলকুপা প্রেসক্লাব। প্রেসক্লাবের সভাপতি এম হাসান মুসার সভাপতিত্বে সোমবার দুপুরে এক জরুরী সভা ডেকে সাংবাদিকরা অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন। এসময় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আক্তার পলাশসহ সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন ।


ঝিনাইদহে মাদ্রাসাছাত্রকে যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষকসহ ৫ জন আটক

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে এক মাদ্রাসাছাত্রকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগে ওই মাদ্রাসার এক শিক্ষকসহ ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার সকালে কালীগঞ্জের সিমলা গ্রামের গাউছুল আজম হাফেজীয়া মাদ্রাসায় থেকে তাকে আটক করা হয়। কালীগঞ্জ থানার ওসি মুহা: মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, রোববার রাতে ওই মাদ্রাসার শিক্ষক মোবারক হোসেন আরও ৪ জন ছাত্রকে নিয়ে এক ছাত্রকে যৌন হয়রানি করে। এসময় ছাত্রটির চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ সোমবার সকালে অভিযুক্ত শিক্ষক মোবারক হোসেনসহ আরও ৪ জনকে আটক করে। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার ছাত্রটির পিতা বাদী হয়ে মোবারক হোসেনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছে। বাকী ৪ ছাত্রকে কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।


ঝিনাইদহে ৪৫ টাকা দরের পেঁয়াজ কিনতে দীর্ঘ লাইন

ঝিনাইদহে শুরু হয়েছে ৪৫ টাকা দরে খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রি। সোমবার শহরের পায়রাচত্বরে সরকারি বিপণন সংস্থা ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)’র তত্বাবধানে খোলাবাজারে বিক্রি শুরু করেছে মেসার্স জয় এন্টারপ্রাইজ। পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হতেই কেনার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ে ক্রেতারা। পড়ে যায় দীর্ঘ লাইন। প্রতিজন এক কেজি করে মিশরীয় পেঁয়াজ নিয়ে আনন্দে ঘরে ফিরেছেন। দুপুর গড়িয়ে যেতেই ভিড় বেড়েছিল আরও কয়েক গুণ। ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বিষয়খালী এলাকা থেকে আসা বশির উদ্দিন বলেন, সকালে শহরে একটি কাজে এসেছিলাম। ৪৫ টাকায় ১ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে শুনে লাইনে দাড়িয়ে পেঁয়াজ কিনলাম। শহরের চাকলাপাড়া এলাকার শাহ আলম বলেন, ৪৫ টাকা এক কেজি মিশরীয় পেঁয়াজ দেওয়া হচ্ছে। ছোট হোক বা বড় হোক পেঁয়াজ তো। এদিকে ক্রেতাদের সামাল দিতে সেখানে উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ।


হরিণাকুন্ডু থানার এক এসআই ও কনস্টেবলের বিরুদ্ধে সাংবাদিকের অভিযোগ

দৈনিক আমাদের নতুন সময় পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি ও গ্রামের কাগজের ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি এম মাহফুজুর রহমানের সাথে অসৌজন্যমুলক আচরণের দায়ে হরিণাকুন্ডু থানার কনস্টেবল আব্দুল আলীমকে বদলী করা হয়েছে। এছাড়া এসআই জিয়াউল হকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার উদ্যোগ নিয়েছে জেলা পুলিশ প্রশাসন। সোমবার দুপুরে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিলু মিয়া বিশ্বাসের সাথে জেলার সিনিয়র সাংবাদিকরা সাক্ষাত করলে তিনি এ কথা জানান। সাংবাদিক এম মাহফুজুর রহমান পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামানের কাছে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন রোববার তিনি একটি তথ্য সংগ্রহনের জন্য হরিণাকুন্ডু থানায় যান। থানার মধ্যে ঢুকতেই সেন্ট্রি পোষ্টে সাদা পাশোকে দায়িত্বরত কনস্টেবল আব্দুল আলীম এম মাহফুজকে বাধা দেন। কেন প্রবেশ করা যাবে না এমন প্রশ্ন করতেই থানার মধ্যে থাকা এসআই জিয়াউল হক বাইরে বেরিয়ে আসেন। তিনি এসে সাংবাদিকদের নিয়ে অশালীন কথা বলেন এবং ফেনসিডিল দিয়ে সাংবাদিক এম মাহফুজকে ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকী দেন। উচ্চস্বরে আওয়াজ শুনে বাইরে বেরিয়ে আসেন ওসি আসাদুজ্জামান। ওসি এসে পরিবশে শান্ত করার চেষ্টা করেন। এ সময় এসআই জিয়াউল হক ওসি আসাদুজ্জামানের সাথেও তুই তুকারি আচরণ করেন। অভিযোগপত্রে সাংবাদিক নিজের নিরাপত্তা এবং এসআই জিয়াউল হক ও কনস্টেবল আব্দুল আলীমের বিচার দাবী করেন। বিষয়টি নিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিলু মিয়া বিশ্বাস জানান, আমরা একটি অভিযোগ পেয়েছি। কনস্টেবল আব্দুল আলীমকে বদরী করা হয়েছে। এসআই জিয়উিল হকের বিরুদ্ধেও তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে হরিণাকুন্ডু থানার ওসি আসাদুজ্জামান সেদিনকার ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন। 


মোবাইল অ্যাপ এর মাধ্যমে কৃষকের ধান বিক্রির নিবন্ধন প্রচারণা

মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে সরকারী গুদামে ন্যায্য মুল্যে ধান বিক্রি করার কৃষকের নিবন্ধন প্রচারণা শুরু করেছে ঝিনাইদহ খাদ্য বিভাগ। এ উপলক্ষ্যে সোমবার ঝিনাইদহ সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে শিক্ষকদের মাধ্যমে এই বার্তা কৃষকদের মাঝে পৌছে দিতে প্রচারণা চালানো হয়। জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আনোয়ারুল করিমের উপস্থিতিতে কার্যক্রমে অংশ নেন জেলার সিনিয়র সাংবাদিক ও দৈনিক নবচিত্র পত্রিকার বার্তা প্রধান আসিফ কাজল ও দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি আমিনুল ইসলাম লিটন। এ সময় ঝিনাইদহ সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার শুধাংশু শেখর, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন, প্রধান শিক্ষক গোপাল দাসসহ জেলার বিভিন্ন প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। প্রচারণায় অংশ নিয়ে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আনোয়ারুল করিম বলেন, আগামী ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে অ্যাপস ব্যাবহার করে কৃষকরা ধান বিক্রির জন্য নিজেকে নিবন্ধন করতে পারবে। একজন কৃষক নিজেকে নিবন্ধিত করলে ধান বিক্রির আবেদন, বরাদ্দের আদশে এবং মুল্য পরিশোধের সনদ সম্পর্কিত তথ্য মোবাইলে এসএমএস’র মাধ্যমে পাবেন। এই অ্যাপস ব্যাবহারের ফলে দালাল, ফড়িয়া ও মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ব কমবে। এতে কৃষকরা সময়, খরচ, হয়রানী ও ভোগান্তির হাত থেকে বাঁচবেন। ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে নিবন্ধন শেষে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে ধান কেনার আবেদন করতে পারবেন। বিস্তারিত তথ্য জানতে ৩৩৩ নাম্বারে কৃষকদের ফোন করতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য

উপর