logo
Floating 2
Floating
শিরোনাম

নওগাঁয় রাইচ মিলে চাঁদা দাবি ও হুমকির অভিযোগে দুই নামধারী সাংবাদিক আটক


নওগাঁয় রাইচ মিলে চাঁদা দাবি ও  হুমকির অভিযোগে দুই নামধারী সাংবাদিক আটক
নওগাঁর দুই হাসকিং মিলে ৬০ হাজার টাকা চাঁদাবাজির দাবী ও ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার করার হুমকি দেওয়ায় দুই কথিত সাংবাদিক মাহাবুর ইসলাম রানা ও অরুপ রতন রায়কে হাতে নাতে আটক করে থানায় সোর্পদ করেছে। মঙ্গলবার বিকেলে নওগাঁ সদরের চন্ডিপুর ইউনিয়নের বলিরঘাট গ্রামে এই ঘটনায় ঘটেছে। ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
মাহাবুর ইসলাম রানার বিরুদ্ধে নওগাঁ ও পতœীতলা থানায় ৫/৬টি চাঁদাবাজি, মাদক ও ছিনতাই মামলা রয়েছে। সে বিভিন্ন মামলায় হাজতও খেটেছে বলে পুলিশ নিশ্চিত করেছে। 
আটককৃকতার হলো নওগাঁ সদরের আরজী নওগাঁ এলাকার লাটাপাড়া বাজারের আবুল কালাম আজাদের ছেলে মাহাবুর ইসলাম রানা (২৮) ও  শহরের হাট-নওগাঁ এলাকার বীনা পানির মোড়ের মৃত অমল কুমার রায়ের ছেলে অরুপ রতন রায় (২৬)।
জানা গেছে, নওগাঁ সদরের চন্ডিপুর ইউনিয়নের বলিরঘাট গ্রামে সাহারা চাউল কল ও তিন ভাই ট্রেডার্সে কথিত দুই সাংবাদিক মাহাবুর ইসলাম রানা ও অরুপ রতন রায় মঙ্গলবার বিকেলে যায়। এরপর ওই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ৬০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। ওই প্রতিষ্ঠানের মালিকার চাঁদা দিতে না চাইলে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে চাল কল বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। এ সময় স্থানীয় মানুষ ও মিল মালিকদের সন্দেহ হলে তাদেরকে আটক করেন। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য দুলাল হোসেনের মাধ্যমে থানায় সোর্পদ করেন। 
নওগাঁ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সোহরাওয়ার্দি হোসেন জানান, এ ঘটনায় সাহারা চাউল কলের মালিক হারুন অর রশিদ ফিরোজ বাদী হয়ে থানায় চাঁদাবাজির মামলা করেছেন। বুধবার ওই দুই চাঁদাবাজকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হবে। 
ওসি আরো জানান, মাহাবুর ইসলাম রানা নিজেকে মানবাধিকার কর্মী ও তালাশ টিমের সদস্য বলে নিজেকে পরিচয় দিয়ে জেলার বিভিন্ন জায়গায় চাঁদাবাজি করে আসছিল। তার বিরুদ্ধে একাধিক চাঁদাবাজি, মাদক ও ছিনতাই মামলা রয়েছে। সে বিভিন্ন মামলায় হাজতবাসও করেছে।

মন্তব্য

উপর