logo
Floating 2
Floating
শিরোনাম

যশোর-৬ ও বগুড়া-১ আসনে উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে


যশোর-৬ ও বগুড়া-১ আসনে উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে

করোনা সংক্রমণ ও বন্যা পরিস্থিতির অবনতির মধ্যেও সাংবিধানিক নিয়ম রক্ষার্থে যশোর-৬ ও বগুড়া-১ আসনে ভোটগ্রহণ চলছে।

মঙ্গলবার এ দুই আসনে সকাল ৯টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়; টানা চলবে বিকাল ৫টা পর্যন্ত।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্য দলের প্রার্থীদের তেমন কোনো তৎপরতা নেই। বিএনপি এ নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টিও ১৪ জুলাই ভোটগ্রহণ নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে।

এমন পরিবেশ-পরিস্থিতির মধ্যে ভোটগ্রহণ চলছে। যদিও ইসির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে– নির্বাচন পেছানোর কোনো সুযোগ নেই।

মহামারীর মধ্যে ভোটে আয়োজনের বাধ্যবাধকতার কথা তুলে ধরেন নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, সাধারণত উপনির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি তুলনামূলক কম হয়ে থাকে। এখন করোনাভাইরাসের মহামারী চলছে। কমিশন এ বিষয়ে সজাগ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব ধরনের ব্যবস্থা রেখেছে।

১৮ জানুয়ারি আওয়ামী লীগদলীয় সংসদ সদস্য আবদুল মান্নানের মৃত্যুতে বগুড়া-১ এবং ২১ জানুয়ারি একই দলের ইসমাত আরা সাদেকের মৃত্যুতে যশোর-৬ আসন শূন্য হয়।

২ লাখ ৩ হাজার ১৮ জন ভোটারের যশোর-৬ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন শাহীন চাকলাদার (নৌকা), আবুল হোসেন আজাদ (ধানের শীষ) ও হাবিবুর রহমান হাবিব (লাঙ্গল)। আর ৩ লাখ ৩০ হাজার ৮৯৩ ভোটারের বগুড়া-১ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন সাহাদারা মান্নান (নৌকা), একেএম আহসানুল তৈয়ব জাকির (ধানের শীষ), মোকছেদুল আলম (লাঙ্গল), মো. রনি (বাঘ), নজরুল ইসলাম (বটগাছ) ও ইয়াসির রহমতুল্লাহ ইন্তাজ (স্বতন্ত্র-ট্রাক)।

যশোর-৬ আসনের উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির জানিয়েছেন, কেন্দ্রে কেন্দ্রে নির্বাচনী কর্মকর্তাদের মাস্ক, গ্লাভস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ভোটারদের হাত ধোয়ার ব্যবস্থা, হাত পরিষ্কার এবং প্রয়োজনীয় নির্দেশনা টাঙানো রয়েছে। কেন্দ্রের প্রতিটি বুথে একজন ভোট দেয়ার পরই আরেকজনকে ভেতরে যেতে দেয়া হচ্ছে, কোনোভাবেই ঝুঁকি নেয়া যাবে না। একজন ভোট দেবে, তার পর আরেকজন বুথে যাবে।


এদিকে বগুড়া-১ আসনের উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা উপসচিব মাহবুব আলম শাহ জানিয়েছেন, বন্যাকবলিত এলাকা হওয়ায় বগুড়ার অন্তত ১০টি ভোটকেন্দ্র স্থানান্তরিত করে উঁচু ও নিরাপদ জায়গায় স্থাপন করা হয়েছে। এসব কেন্দ্রের তালিকা গেজেটও করা হয়েছে। কোনোভাবেই ভোটের আর অসুবিধা হবে না।

মন্তব্য

উপর